বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মুকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার  নির্দেশনা সুদূরপ্রসারী ও ইতিবাচকও বটে।তার সাথে যুক্ত হয়েছে জাতিরপিতার জন্মশতবর্ষ। তাই এবারের আয়োজনে মানবিকতার অনন্য প্রকাশ লক্ষনীয়।
শেরপুরে বৃক্ষরোপন
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য ইতিমধ্যেই মানবিকতার বিশুদ্ধ কোমলপ্রাণ হিসাবে প্রতীয়মান। তাই মুজিব বর্ষকে সম্মান ও স্বরণীয় রাখতে হাতে নিয়েছে মাসব্যাপী  বৃক্ষরোপনের  আয়োজন। নেতাকর্মীদের কে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে প্রত্যকেই যেন অন্তত তিনটি করে গাছ লাগায়। এরই ধারাবাহিক অংশ হিসাবে শেরপুরে  ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্যোগে শুরু হয়েছে ব্যাপক কার্যক্রম। পুরো মাসব্যাপী এই বৃক্ষরোপন অভিযানের সামনের সারিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শেরপুরের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্রলীগ নেতা।

জনপ্রিয় মুখ ও শেরপুর জেলার জনপ্রিয় আওয়ামী লীগ নেতা ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান  জনাব হুমায়ুন কবির রুমানের ভাগ্নে মুজিবুর রহমান মুজিব।ইতিমধ্যেই মুজিব সহ শেরপুরের বিভিন্ন পর্যায়ের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান, স্কুল- কলেজের আঙ্গিনা, ও বিভিন্ন ওয়ার্ডে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির সফল বাস্তবায়ন করেছেন।

আজকে ৫ই জুলাই, শেরপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডে চাপাতলি গোরস্তানে ৪০টি বিভিন্ন ধরনের বৃক্ষ রোপন করা হয়। এসময় কলেজ  ছাত্রলীগ ও জেলা ছাত্রলীগের বিপুল সংখ্যক কর্মী স্বতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে। এই সময় কর্মসূচি সফল করায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন আরমান ও দ্বীপ।
শেরপুরে কবরস্থানে বৃক্ষরোপন
একপর্যায়ে আরমান টেক সলিডারকে বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের মানবিকতার চর্চায় ইতিমধ্যে  আমাদের সুনাম বৃদ্ধি পেয়েছে। তাদের দিকনির্দেশনা ও আমাদের শেরপুরের ছাত্ররাজনীতির জনপ্রিয় মুখ মুজিবের সার্বিক সহযোগিতা ও পরামর্শে আমাদের এই কর্মসূচি ইতিমধ্যেই অনেক প্রশংসা পেয়েছে।

আমরা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এমন সুযোগ করে দেওয়ার জন্য কারন এই কর্মসূচির মাধ্যমে আমরা একদিকে যেমন আরো সংগঠিত হওয়ার সুযোগ পাচ্ছি তেমনি পরিবেশের ভারসাম্য ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে কাজ করছি।বঙ্গবন্ধু তনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনা ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের এমন সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত আমাদেরকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে অনুপ্রেরণা দিবে বলে আশা প্রকাশ করেন জেলার অত্যন্ত পরিশ্রমী ও পরিচ্ছন্ন ছাত্রলীগ নেতা মুজিবুর রহমান মুজিব।উল্লেখ্য তারা ৫নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ৪০ টি বনজ, ফলদ ও ঔষধি চারা রোপণ করে। এ সময় উপস্থিত থেকে ছাত্রনেতাদের উৎসাহ দেন শেরপুর পৌরসভার সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান মতিউর রহমান মতি।

ছাত্রনেতাদের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা শাহিদুর রহমান শাহিন, জহির রায়হান, কলেজ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস, সাংগঠনিক সম্পাদক,তানভীর আহম্মেদ পাপ্পু, রাকিবুল সুমন, জনি, সৌরভ, আজিজুল, লোকমান সহ কলেজ, জেলা ও ওয়ার্ড ছাত্রলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

Post a Comment

Please don't use spamming and bad words here. Remember that your comment must be reviewed by the admin.